সিভিক ভলেন্টিয়ারদের মাধ্যমে তোলাবাজি চালানো হচ্ছে , বললেন সুজন 

প্রণব বিশ্বাস ,২২শে জানুয়ারি :  তোলাবাজির রাজত্ব চলছে এই রাজ্যে।সিভিক ভলেন্টিয়ারদের মাধ্যমে তোলাবাজি চালানো হচ্ছে।এই তোলাবাজি বন্ধ না হলে সৌমেন দেবনাথের মতো ঘটনা আরও  ঘটবে। সিভিক ভলেন্টিয়ারের মারে মৃত সৌমেন দেবনাথের মধ্যমগ্রামের শ্রীনগর শীবতলার বাড়িতে পরিবারে সঙ্গে দেখা করতে এসে সোমবার বিকেলে একথা বলেন রাজ্য বিধানসভার পরিষদীয় দলনেতা সুজন চক্রবর্তী।  এদিনের প্রতিনিধি দলে সুজন ছাড়াও ছিলেন উত্তর দমদমের বিধায়ক তন্ময় ভট্টাচার্য সহ মধ্যমগ্রামের স্থানীয় সিপিএম নেতৃত্ব।

এদিন বিকেল সাড়ে চারটে নাগাদ মৃত সৌমেন দেবনাথের বাড়িতে আসেন তারা।দেখা করেন মৃতের পরিবারের সঙ্গে।সৌমেনের স্ত্রী কাকলী দেবনাথ তাদের বলেন সরকার পাশে থাকার কথা বলেছেন।পরিবারের একমাত্র রোজগেরে মানুষটিই আর নেই।তাই আমার বড় মেয়ের জন্য একটা চাকরীর আর্জি জানিয়েছি মুখ্যমন্ত্রীর কাছে।মুখ্যমন্ত্রীরর উপর আমাদের আস্থা রয়েছে।সুজন চক্রবর্তী তাকে বলেন আমরাও আপনাদের পাশে আছি।আমরাও  মুখ্যমন্ত্রীর কাছে এই দাবীইই রাখব।চাকরীরর একটা ব্যাবস্থা সরকারকে করতেই হবে।তন্ময় ভট্টাচার্য মেঘা দেবনাথের হাত ধরে বলেন ঘটনার নিন্দা করার মতো ভাষা নেই।এই ধরনের কাজের প্রতিবাদ হওয়া উচিত।বিনা কারনে লোকটাকে মেরে ফেলল বলে কেঁদে ওঠেন কাকলী।আমার স্বামী তো চোর ডাকাত নয় যে ওরা এইভাবে মেরে ফেলবে।বেড়িয়ে আসার আগে ফের একবার পাশে থাকার আশ্বাস দিয়েছেন সুজন তন্ময়রা।পরিবারের সঙ্গে কথা বলে এদিন সৌমেন দেবনাথের ছবিতে মালা দিয়েছেন সুজন চক্রবর্তী তন্ময় ভট্টাচার্যরা।

মৃত সৌমেন দেবনাথের বাড়িতে 

সুজন বলেন রাজ্য সরকার সিভিক ভলেন্টিয়াদের চাকরির ব্যাবস্থা করেছে।হাতে তাদের লাঠি এবং কখনও কখনও গায়ে পুলিশের পোষাক তুলে দিচ্ছে।কিন্তু মাইনে দিচ্ছে না তাদের।কার্যত তাদের বলা হচ্ছে যে যে রকম ভাবে পারো তোলাবাজি করে টাকা তুলে নাও।সিভিক ভলেন্টিয়াররাও তাই করে যাচ্ছে গাড়ি চেক করার নাম করে।সিভিক ভলেন্টিয়ারদের মাধ্যমে রাজ্যে তোলাবাজি চলছে।রাজ্য জুড়ে বিশৃংখলা চলছে বলেও তিনি মন্তব্য করেন।

তন্ময় ভট্টাচার্য বলেন রাজ্যে ট্রাফিক বলে কিছু নেই।সিভিক ভলেন্টিয়ারই সব।তারাই দাপিয়ে বেড়াচ্ছে।তিনি অবশ্য বলেন সিভিকের গোটা অংশটাই অবশ্য এর জন্য দায়ী নয়।কিন্তু অধিকাংশদের দিয়েই তোলাবাজি চালানো হচ্ছে।তোলাবাজির আবার ভাগীদারও আছে।সেটা যারা তোলে তারাই বলতে পারবে।

102total visits,1visits today

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *