“খাঁচাবন্দি” ‘বাঘিনী’ মুক্তি পাবে ২৪শে মে , “ট্রেলার” আপাতত “আউট অফ মার্কেট”

 

মদনমোহন সামন্ত, কলকাতা, ১ লা মে : শেষ পর্যন্ত “খাঁচাবন্দি”ই রইল “বাঘিনী”!
অণু”প্রাণিত” হওয়া বা অণু”প্রেরণা”র “অনুমাত্র” বিন্দুবিসর্গ রইল না। আগামী ঊনিশে মে সপ্তদশ লোকসভা নির্বাচনের সপ্তম তথা শেষ দফার ভোটগ্রহণ শেষ না হওয়া পর্যন্ত তাকে “মুক্তি” দেওয়া যাবে না। কাউকে দেখে “অনুপ্রাণিত”, পিংকি পাল প্রযোজিত “বাঘিনী”কে অবশ্য তিন মে মুক্তি দেওয়ার কথা জানানো হয়েছিল।

“বাঘিনী”র ছোট্ট এক “ঝলক” দেখেই ভয়ে ভীতসন্ত্রস্ত হল্লা-করা “উন্নয়নের পথে বাধা সৃষ্টিকারী” বিরোধীরা নির্বাচন কমিশনে নালিশ ঠুকে দিয়েছিল। বিভিন্ন বিষয় খতিয়ে দেখে কমিশন নির্দেশ দিয়েছে আগামী ঊনিশে মে শেষ দফার ভোটগ্রহণ সম্পূর্ণ হওয়ার আগে “বাঘিনী”কে খাঁচামুক্ত করা যাবে না। শুধু তাই নয়, বিভিন্ন ওয়েবসাইট এবং সোশ্যাল মিডিয়ার সমস্ত প্ল্যাটফর্ম ইত্যাদি থেকে “ট্রেলার” বা “প্রোমো” তুলে নিতে হবে। নির্দেশ পেয়ে পূর্ণ দৈর্ঘ্যের “বাঘিনী”র জন্য তৈরি করা “ট্রেলার” আপাতত “আউট অফ মার্কেট”।

আজ বুধবার পয়লা মে “শ্রমিক দিবসে” নির্বাচন কমিশনে এসে প্রযোজক পিংকি পাল লিখিতভাবে চিঠির মাধ্যমে জানান দিয়ে গেলেন, বিভিন্ন ওয়েবসাইট এবং সোশ্যাল মিডিয়াসহ সমস্ত প্ল্যাটফর্ম থেকে সমস্ত “প্রোমো” তুলে নেওয়া হয়েছে। একই সঙ্গে জানিয়েছেন, “বাঘিনী”কে মুক্ত করা হবে সপ্তদশ লোকসভা নির্বাচনের ফলাফল ঘোষণার পরের দিন ২৪ মে।

কমিশনে এসে তাঁদের বক্তব্য জানানোর পর প্রযোজক পিংকি পাল সাংবাদিকদের জানান, “কমিশন আমাদের বন্ধ করার জন্য বলেছিলেন। সেই কারনে আমরা বন্ধ করে দিয়েছি। সেই চিঠি কমিশনে জমা করলাম।” তিনি জানালেন, কোন রাজনৈতিক দলের কাউকে দেখে চলচ্চিত্রটি তৈরি করা হয় নি। এটি কোন “বায়োপিক” নয়। হয়তো কাউকে দেখে তার অনুপ্রেরণায় তৈরি করা হয়েছে মাত্র।

155total visits,4visits today

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *