সুপ্রিম কোর্টে রামধাক্কা : “রক্ষাকবচ”হারা রাজীব কুমার সিবিআইয়ের নাগালে

 

মদনমোহন সামন্ত, কলকাতা, ১৭ই মে :     শুরু থেকে সিবিআই নাগাড়ে দাবি করে আসছিল কলকাতার নগরপাল রাজীব কুমারকে গ্রেফতার করে তাদের হেফাজতে নিয়ে সারদা মামলায় জেরা করার। তাঁর বিরুদ্ধে অভিযোগ, তিনি গুরুত্বপূর্ণ তথ্যপ্রমাণ লোপাট করেছেন এবং সিবিআইয়ের তদন্তে সহযোগিতা করছেন না। গত পাঁচ ফেব্রুয়ারি দেশের শীর্ষ আদালত রাজীব কুমার-এর পক্ষে রায় দিয়ে বলেছিলেন, তাঁকে নিরপেক্ষ জায়গায় জেরা করা যাবে কিন্তু এখনই গ্রেফতার করা যাবে না। এই শর্ত মেনে শিলং-এ ছয় দিন ধরে তাঁর জেরা পর্ব চলে। জেরা পর্বের রেকর্ডিং এবং অন্যান্য তথ্যপ্রমান-সহ সিবিআই শীর্ষ আদালতে আবেদন করে রাজীব কুমারকে তাদের হেফাজতে নেওয়ার জন্য। আজ শুক্রবার সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতি সঞ্জীব খান্না রায় দিয়েছেন, প্রয়োজনে রাজীব কুমারকে সিবিআই গ্রেফতার করতে পারবে এবং জেরা পর্ব চালিয়ে যেতে পারবে। আদালত রাজীব কুমার-এর থেকে রক্ষাকবচ ফিরিয়ে নিচ্ছে। তিনি উল্লেখ করেছেন যে এই সিদ্ধান্ত নেওয়ার সময় মামলাটির “মেরিট” বিবেচনা করা হয়নি। শুধুমাত্র গ্রেফতার করা যাবে কি যাবে না – এই বিষয় বিবেচনা করা হয়েছে। তবে লক্ষ্যণীয় সিবিআই চাইলেই এখনি তাঁকে গ্রেফতার করতে পারবে না। রাজীব কুমার এক সপ্তাহের মধ্যে আজকের রায়ের পরিপ্রেক্ষিতে উপযুক্ত আদালতে আবেদন করতে পারবেন । বিচারপতি খান্না তাঁর রায়ে জানিয়েছেন “উই হ্যাভ নট গান ইন টু মেরিট”। এছাড়াও রাজীব কুমার-এর জন্য জানিয়েছেন “ইট ইজ ওপেন টু রাজীব কুমার টু ক্যাটেগরিক্যালি অ্যাপ্লাই ফর এপ্রোপ্রিয়েট রিলিফ”। তবে এই আবেদন বা তৎসম্পর্কিত প্রক্রিয়া চলাকালীন সিবিআইয়ের জেরা পর্ব বা অন্যান্য প্রক্রিয়া চালাতে কোন বাধা নেই। প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, নির্বাচন কমিশন নির্বাচনী প্রক্রিয়ায় প্রভাব ফেলার জন্য তাঁকে কলকাতায় তাঁর পদ থেকে সরিয়ে দিয়েছিল। তিনি গতকালই দিল্লিতে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকে পৌঁছে রিপোর্ট করেছিলেন। আজও তিনি দিল্লিতে আছেন। আইন বিশেষজ্ঞরা বলছেন, রাজীব কুমার এক্ষেত্রে উপযুক্ত আদালতে অন্তর্বর্তীকালীন জামিনের আবেদন করতে পারেন মাত্র। তা ছাড়া তাঁর কাছে আর কোন পথ খোলা নেই। রাজীব কুমার আবেদন জানানোর জন্য আইনজ্ঞদের সাহায্য নিতে শুরু করেছেন।

45total visits,1visits today

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *