সুশান্তের মৃত্যু তদন্তে নয়া মোড়, মুম্বই পুলিশের তলব এবার করণ জোহরকে

মুম্বাইঃ  আগেই মহারাষ্ট্রের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী জানিয়েছিলেন, করণ জোহরের ম্যানেজারের বয়ান রেকর্ড করা হবে।সেইমত মুম্বাই পুলিশের তরফ থেকে করণকে জিজ্ঞাসাবাদের বিষয়ে শিলমোহর দেওয়া হল। সুশান্তের মৃত্যুর তদন্তের জন্য মহেশ ভাটের পরে ডাকা হবে করণ জোহরকেও।

অবশেষ রিপোর্ট অনুসারে, করণ জোহরকেও এবার ডাকা হবে সুশান্তের মৃত্যুর তদন্তের জন্য। চলতি সপ্তাহের মধ্যেই জোহরকে ডাকা হবে বলে জানা যাচ্ছে। পাশাপাশি ইতিমধ্যেই থানায় তলব করা হয়েছে করণ জোহরের ধর্মা প্রোডাকশনের সিইও তথা করণের দীর্ঘদিনের বন্ধু অপূর্ব মেহতাকে। যিনি ধর্মা প্রোডাকশনের যাবতীয় কাজ সামলান। করণের ম্যানেজার রেশমা শেট্টির বয়ান আগেই রেকর্ড করেছে পুলিশ।

সোমবার চলচ্চিত্র নির্মাতা মহেশ ভাটকেও জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। মুম্বই পুলিশ তাঁর বয়ান ইতিমধ্যেই রেকর্ড করে ফেলেছে। এবার সোশ্যাল মিডিয়াতে করণকে নিয়ে তোলা সমালোচনা কোন দিকে মোড় নেবে তার দিকেই তাকিয়ে নেটিজেনরা।

নেপোটিজমের জন্মদাতা বলে কটাক্ষ সহ্য করেও করণ সুশান্তের মৃত্যু নিয়ে প্রকাশ্যে সেভাবেই কিছুই বলেননি। বেশ কিছু বলি তারকা যাঁদের বলিজগতে পরিচিতিটা পরিবারসূত্রেই তাঁরাও সুশান্তের মৃত্যুর পরে ভক্তদের কড়া মন্তব্যের শিকার হয়েছেন। এমনকি করণ জোহরকেও সুশান্তের মৃত্যুর একটি মুখ্য কারণ হিসেবে ধরা হয়েছে।

সলমন খান এবং জোহরের দিকে আঙুল তুলেছেন সমালোচকরা। বলিউডে তাঁদের একাধিপত্য এবং নেপোটিজম যোগ টেনে সুশান্তকে ছবি না দেওয়ার জল্পনা করার অভিযোগ তোলা হয়েছে এই দুই সিনেমা জগতের পরিচিত ব্যক্তিত্বের বিরুদ্ধে।

সুশান্তের মৃত্যুর পরেই মহারাষ্ট্রের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর তরফে জানানো হয়েছিল, সুশান্তের আত্মহত্যার কারণ হিসাবে পেশাদার জগতের রেষারেষির বিষয়টি গুরুত্ব সহকারে খতিয়ে দেখছে মুম্বই পুলিশ। বলিউডের একাধিক নামী ব্যক্তিত্বকে ইতিমধ্যেই এই মামলায় জিজ্ঞাসাবাদ করেছে মুম্বই পুলিশ। যশ রাজ ফিল্মসের কর্ণধার আদিত্য চোপড়াকে প্রায় ৪ ঘন্টা ধরে জেরা করে পুলিশ। এছাড়াও সঞ্জয় লীলা বনশালিকেও প্রশ্ন করে মুম্বই পুলিশ। সূত্রের খবর, বনশালি ও আদিত্য চোপড়া পুলিশকে পরস্পর বিরোধী বয়ান দিয়েছেন।

উল্লেখ্য জীবদ্দশায় সুশান্তের শেষ ছবি ড্রাইভের প্রযোজক ছিলেন করণ জোহর। ওটিটি প্ল্যাটফর্ম নেটফ্লিক্সে সরাসরি এই ছবি মুক্তি দেওয়ার করণের সিদ্ধান্তে সায় ছিল না সুশান্তের। সেই নিয়ে দুজনের মনোমালিন্যের খবরও গত বছর সামনে এসেছিল। অন্যদিকে কঙ্গনা রানাওয়াত বারংবার দাবি করেছেন, ‘মুভি মাফিয়া’রা চক্রান্ত করে সুশান্তকে ফ্লপস্টার-এর তকমা দিয়ে তাঁর কেরিয়ার বরবাদ করবার চেষ্টা করেছে। সরাসরি নাম করে করণ জোহর ও আদিত্য চোপড়ার বিরুদ্ধে তোপ দেগেছেন কঙ্গনা।

তবে আজ অর্থাৎ সোমবারের মহেশ ভাটের বয়ানের পর জোহরের বয়ান সুশান্তের মৃত্যু তদন্তে নয়া কি মোড় আনে তাই নিয়েই জল্পনা তুঙ্গে।