নবদ্বীপে একই পরিবারের পাঁচ সদস্য করোনায় আক্রান্ত, বন্ধ এলাকার সব দোকান

সমীর সাহা, নদিয়াঃ এই প্রথম একই পরিবারের পাঁচ জনের র‍্যাপিড অ্যন্টিবডি টেস্টের রিপোর্ট পজিটিভ আসায় সোমবার আতঙ্ক ছড়াল নদীয়ার নবদ্বীপে। এদিন নবদ্বীপ পুরসভার ১৪ নম্বর ওয়ার্ডের মালঞ্চপাড়া অফিসঘাট রোডের বাসিন্দা স্টেশনারি ব্যবসায়ী তিনি এবং তার পরিবারের পাঁচজনের রিপোর্ট পজিটিভ আসে।এরপর ওই এলাকাটি স্যানিটাইজ করার পাশাপাশি কনটেনমেন্ট জোন হিসাবে ঘোষণা করা হয়। আক্রান্ত পাঁচজনের মধ্যে চারজনকে বাহাদুরপুর সেভ হোমে এবং বাড়ির এক ৮৫ বছর বয়সী মহিলাকে গ্লোকোল কোভিড হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হবে। অন্যদিকে পোড়ামাতলায় যে এলাকায় আক্রান্ত ওই ব্যক্তি ব্যবসা করতেন। সংক্রমণ রুখতে সেই এলাকাটির সমস্ত দোকানপাট সাতদিন বন্ধ রাখতে বলা হয়েছে।এই নিয়ে নবদ্বীপ পুর এলাকায় আক্রান্ত হলেন ৩১জন। অন্যদিকে নবদ্বীপ ব্লকে এখনও পর্যন্ত আক্রান্তের সংখ্যা ৭১ জন। তবে মায়াপুরের মোল্লাপাড়া এবং দাসপাড়ায় প্রতিদিনই হু হু করে সংক্রমণ বেড়েই চলেছে। সে কারণে ইতিমধ্যে মায়াপুর বামুনপুকুর ১ নম্বর গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকাটি ৬ দিনের জন্য লকডাউন ঘোষণা করেছে পঞ্চায়েত।

অন্যদিকে নাকাশিপাড়া ব্লকের একটি রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংকের পাঁচ ব্যাঙ্ক কর্মীর করোনা রিপোর্ট পজিটিভ আসায় পর সাত দিনের জন্য ওই রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংকের কাজকর্ম বন্ধ করে দিল ব্যাংক কতৃপক্ষ। বেথুয়াডহরি ১ নম্বর গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান পার্থ ঘোষ জানান ওই ব্যাংকের পাঁচ কর্মীর রিপোর্ট পজিটিভ এসেছে।সেই কারণে ব্যাংকটিকে সম্পূর্ণভাবে স্যানিটাইজ করা হয়। পাশাপাশি এই সংক্রমণ যাতে নতুন করে আর না ছড়ায় সে কারণেই এই সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছেন ব্যাংক কর্তৃপক্ষ। এই নিয়ে এখনও পর্যন্ত নাকাশিপাড়া ব্লকের আক্রান্ত হয়েছে ৯৩জন।

Google news