বিশ্বের ষষ্ঠতম ধনী ব্যাক্তি হলেন মুকেশ আম্বানি, দৌড়ে হার গুগল প্রতিষ্ঠাতার

মুকেশ আম্বানি।

নিজস্ব প্রতিনিধি, মুম্বই: ধনীতম ব্যক্তির রেসে অবাক করে দেওয়ার মত  গতিতে দৌড়াচ্ছেন রিলায়েন্স ইন্ডাস্ট্রিজের প্রধান মুকেশ আম্বানি । গুগলের প্রতিষ্ঠাতা সার্জ ব্রিন এবং ল্যারি পেজকে ছাড়িয়ে তিনি বিশ্বের ষষ্ঠ ধনী ব্যক্তি হয়েছেন। তিন দিনের মধ্যেই তিনি বিশ্বের সপ্তম থেকে ষষ্ঠ ধনী হয়ে উঠছেন।

ব্লুমবার্গ বিলিয়নেয়ার ইনডেক্স অনুসারে, রিলায়েন্স কোম্পানির মালিকের মোট সম্পদ ৭২.৪ বিলিয়ন মার্কিন ডলারে পৌঁছেছে। উল্লেখযোগ্যভাবে, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে টেক শেয়ারের হ্রাসের কারণে গুগলের প্রতিষ্ঠাতার খাতায় ৭১.৬ বিলিয়ন মার্কিন ডলারের সম্পদ রয়েছে এবং ব্রিনের সম্পদ মাত্র ৬৯.৪ বিলিয়ন ডলার। ফোর্বস রিয়েল টাইম বিলিয়নেয়ার ইনডেক্স অনুসারে, গত সপ্তাহে, মুকেশ আম্বানি বার্কশায়ার হাথওয়ের সিইও এবং অভিজ্ঞ বিনিয়োগকারী ওয়ারেন বাফেটকে ছাড়িয়ে বিশ্বের সপ্তম ধনী ব্যক্তি হয়েছেন।

তিনি বেশ কয়েক বছর ধরে একটানা ভারতের এক নম্বর ধনী ব্যক্তি। তিনি এশিয়ার ধনীতম ব্যক্তি এবং একমাত্র এশিয়ান যিনি এটিকে বিশ্বের শীর্ষ দশ ধনী তালিকায় স্থান দিয়েছেন।

গত তিন মাসে এক ডজনেরও বেশি বিদেশি সংস্থা রিলায়েন্স ইন্ডাস্ট্রিজ গ্রুপের সংস্থা জিও প্ল্যাটফর্মগুলিতে এক লাখ কোটি টাকারও বেশি বিনিয়োগ করেছে। এ কারণে রিলায়েন্সের শেয়ার ক্রমাগত জোরদার হচ্ছে। রিলায়েন্স ইন্ডাস্ট্রিজের বাজার মূলধন ১২ লক্ষ কোটি ছাড়িয়েছে।

বিলিয়নেয়ারদের তালিকার শীর্ষে রয়েছেন আমাজনের প্রতিষ্ঠাতা জেফ বেজোস যার মোট সম্পদ ১৮৪ মার্কিন বিলিয়ন ডলার। একই সঙ্গে, মাইক্রোসফ্টের বিল গেটস দ্বিতীয় নম্বরে এবং বার্নার্ড অর্নল্ট পরিবার তিন নম্বরে রয়েছেন। এ ছাড়া ফেসবুকের প্রতিষ্ঠাতা মার্ক জুকারবার্গ চতুর্থ নম্বরে, স্টিভ বলমার পাঁচ নম্বরে রয়েছেন।

গুগলের সহ-প্রতিষ্ঠাতা ল্যারি পেজ সাত নম্বরে মুকেশ আম্বানির পরে আছেন, আট নম্বরে ওয়ারেন বুফেট এবং ৯ নম্বরে গুগল থেকে সের্গেই ব্রিন রয়েছেন। এলন মাস্ক একমাত্র আমেরিকান ব্যবসায়ী দশম স্থানে রয়েছেন।

বিশ্বে, প্রতিদিন বিলিনারের তালিকা ফোর্বস এবং ব্লুমবার্গ প্রকাশ করে তবে বিভিন্ন সময়ে প্রকাশিত হওয়ার কারণে দুটি চিত্রের মধ্যে পার্থক্য অনেকবার দেখা যায়।