আগুনে পুড়ল ঘর, বিপাকে মেধাবী পড়ুয়াও

হাবড়া: মাঝরাতে একটি বাড়িতে অগ্নিকাণ্ডের জেরে গ্যাস সিলিন্ডার ফেটে আগুন ছড়িয়ে পড়ল পাশের বাড়িতে। বুধবার রাতে ঘটনাটি ঘটেছে হাবড়ার এক নম্বর ওয়ার্ডের আয়রা এলাকায়। আগুনে দু’টি বাড়ির আসবাবপত্র-সহ নানা জিনিসপত্রের সঙ্গে গুরুত্বপূর্ণ কাগজ ও জমানো টাকাও পুড়ে ছাই হয়ে গিয়েছে। ফলে চরম বিপাকে পড়েছে পরিবার দু’টি। সমস্যায় পড়েছেন ক্ষতিগ্রস্ত একটি বাড়ির কলেজ পড়ুয়া ছাত্রীও। মেধাবী ওই ছাত্রীর বইপত্র থেকে সমস্ত সার্টিফিকেট পুড়ে গিয়েছে। এখন কী ভাবে পড়াশোনা চলবে তা নিয়েও চরম চিন্তায় রয়েছেন তিনি।

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, আয়রা এলাকার বাসিন্দা শিবুপদ ভট্টাচার্যের বাড়িতে কোনও ভাবে আগুন লাগে। তার জেরে বাড়িতে থাকা গ্যাস সিলিন্ডার ফেটে সেই আগুন ছড়িয়ে পড়ে পাশের বাড়িতে। নিমেষেই দাও দাও করে জ্বলতে থাকে পেশায় ভ্যানচালক সঞ্জয় দে নামে ওই প্রতিবেশীর বাড়ি। সঞ্জয়ের ছেলে মৃত্যুঞ্জয় দে বলেন, ‘এলাকায় ক্যাটারিং করে ও একটি মোবাইলের দোকানে কাজ করে ৭০ হাজার টাকা বাড়িতে জমিয়ে রেখেছিলাম। ওই টাকা দিয়ে বোনের পড়াশোনা চালানোর পাশাপাশি ও একটি বাইক কিনে ডেলিভারি বয়ের কাজ করব বলে ঠিক করেছিলাম। কিন্তু সব শেষ হয়ে গেল।’ মৃত্যুঞ্জয়ের বোন সহেলী হাবড়া শ্রীচৈতন্য মহাবিদ্যালয়ে ইতিহাসে অনার্সের দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্রী। পড়াশোনায় যথেষ্ট মেধাবী। তাঁর সমস্ত কাগজপত্রও পুড়ে গিয়েছে বলে জানিয়েছেন মৃত্যুঞ্জয়।

ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের সদস্যরা জানান, আগুন লাগার পর কোনও রকমে প্রাণটুকু নিয়ে ঘর থেকে বেরিয়ে আসতে পেরেছেন। কোনও জিনিস সঙ্গে আনতে পারেননি। এদিকে আগুনের শিখা দেখে এলাকার বাসিন্দারা এগিয়ে এসে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনার চেষ্টা করেন। পরে খবর পেয়ে দমকলের একটি ইঞ্জিন এসে আগুন নিয়ন্ত্রণ করে। ততক্ষণে অবশ্য জিনিসপত্র সবই পুড়ে ছাই হয়ে যায়।

Google news