Paschim Medinipur: তৃণমূল নেতার বিরুদ্ধে প্রতিবন্ধী মহিলাকে ধর্ষণের অভিযোগ

নিজস্ব প্রতিনিধি, পশ্চিম মেদিনীপুর :   আবারও এক প্রতিবন্ধী মেয়েকে ধর্ষনের অভিযোগ উঠল শাসকদলের এক পঞ্চায়েত সদস্যের বিরুদ্ধে। ঘটনাকে কেন্দ্র করে শুরু হয়েছে রাজনৈতিক তরজা। ঘটনাটি ঘটেছে পশ্চিম মেদিনীপুর (Paschim Medinipur) জেলার পিংলা থানার পিন্ডরুই পঞ্চায়েতের অন্তর্গত কালুখাঁড়া গ্রামে।

ইতিমধ্যেই অভিযুক্ত পঞ্চায়েত সদস্য অভিজিৎ মণ্ডলকে আটক করেছে পিংলা থানার পুলিশ। বিশেষ সূত্রে জানা গিয়েছে, নির্যাতিতা বাসন্তী পূজা উপলক্ষে তার দিদির বাড়িতে গিয়েছিল। সোমবার রাত্রিবেলা সেখানে আরো অনেক আত্মীয়স্বজন এসেছিল। রাতে খাওয়া-দাওয়া শেষে বাড়ির পাশে পুকুর ঘাটে বাসন মাজতে গিয়েছিল দিদির পুত্রবধূ সাথে পুকুরপাড়ে এমার্জেন্সি লাইট নিয়ে দাঁড়িয়ে ছিল নির্যাতিতা। সেই সময় হঠাৎ করেই অভিজিৎ মন্ডল নামের ওই ব্যক্তি নির্যাতিতাকে পাঁজাকোলা করে তুলে নিয়ে পার্শ্ববর্তী জঙ্গলে গিয়ে শারীরিক নির্যাতন করে বলে অভিযোগ।

এর পরেই বাসন মাজা বন্ধ করে ওই মহিলা চিৎকার করে এলাকাবাসীকে ডাকতে শুরু করে। সবাই মিলে যখন ঘটনাস্থলে যায়,বেগতিক দেখে পালিয়ে যায় অভিযুক্ত।

এরপর মেয়েটিকে রক্তাক্ত অবস্থায় উদ্ধার করে এবং মঙ্গলবার সকালে তাকে নিয়ে তার পরিবারের লোকেরা মেদিনীপুর মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালের চিকিৎসা করাতে যান। সেখানেই তার শারীরিক পরীক্ষা করা হয়।

পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার তৃণমূল কংগ্রেসের প্রাক্তন জেলা সভাপতি তথা জেলা পরিষদের সহ-সভাপতি অজিত মাইতি বলেন, “অভিযোগ একটা শুনেছি, তবে গ্রামের লোকজন বলছেন অভিজিৎ মন্ডল ওই ঘটনায় জড়িত নয় তবুও আমি বলছি যদি, আমাদের দলের কেউ যদি এই ঘটনায় জড়িত থাকেন আমি প্রশাসনকে বলেছি যথাযথ ব্যবস্থা নিতে।

Google news