অবাধ যৌনতা হাসপাতালেই!ভিডিও ভাইরাল হতেই আত্মহত্যার চেষ্টা ডেপুটি সুপারের

খবর এইসময়,নিউজ ডেস্ক:কাজ দেওয়ার নাম করে হাসপাতালেই মধুচক্রের আসর চলে বলে আগেই উঠেছিল অভিযোগ। এবার সামনে এল এক গোপন ভিডিও (যদিও খবর এই সময় এই ভিডিওটির সত্যতা যাচাই করেনি)। যার জেরে ঘুমের ওষুধ খেয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করলেন হাসপাতালের ডেপুটি সুপার। বর্তমানে তিনি ওই হাসপাতালেই চিকিৎসাধীন। চাঞ্চল্যকর ঘটনা পূর্ব বর্ধমানের কাটোয়া মহকুমা হাসপাতালের। অভিযুক্ত ডেপুটি সুপার অনন্য ধর। হাসপাতালের ভিতরই এই অবাধ যৌনতার ভিডিও প্রকাশ হতেই বিব্রত কাটোয়া মহকুমা হাসপাতাল কর্তপক্ষ। সোমবার গভীর রাতে এই ভিডিওটি সোশাল মিডিয়ায় আপলোড করেন এক মহিলা। এরপরই চাঞ্চল্য ছড়ায় কাটোয়ায়। হাসপাতালের সুপার রতন শাসমল অবশ্য স্বীকার করে নিয়েছেন ডেপুটি সুপারের আত্মহত্যার চেষ্টার কথা।

 

মাননীয়া মুখ্যমন্ত্রী দেখুন আপনার কাটোয়া মহকুমা হাসপাতালের ASSISTANT SUPER অনন্য ধর মহিলাদের কাজ পাইয়ে দেয়ার বিনিময়ে হাসপাতালের মধ্যে মধুচক্র বা শারীরিক শোষন করছেন। বন্ধুরা এটা খুব শেয়ার করুন। যাতে কুকুরটার চাকরি না থাকে।আমাদের বাংলার স্বাস্থ্য পরিষেবার লজ্জা।আশা করি মাননীয়া স্বাস্থ্যমন্ত্রী আপনি এই কুকুরটার বিরুদ্ধে কড়া ব্যবস্থা নেবেন।

Posted by Annya Dey on Monday, June 29, 2020

 

তিনি জানিয়েছেন, ডেপুটি সুপারের অবস্থা এখন স্থিতিশীল। গোপন ভিডিওতে (যদিও খবর এই সময় ভিডিও-র সত্যতা যাচাই করেনি) দেখা যাচ্ছে এক পঞ্চাশোর্ধ্ব ব্যক্তি এক মহিলাকে আশালীনভাবে স্পর্ষ করছেন। এমনকি ওই মহিলার শাড়ি তুলে নিতম্বে চুম্বন করতেও দেখা যায় তাঁকে। ভিডিও-র পুরুষ ব্যক্তিটি কাটোয়া হাসপাতালের ডেপুটি সুপার হিসেবে চেনা গেলেও মহিলার ছবি স্পষ্ট নয়। ভিডিওটি দেখে বোঝাই যাচ্ছে এটা বহু পুরোনো। কারণ ওই মহিলার গায়ে চাদর ও ডেপুটি সুপারের পরনে হাফ সোয়েটার।

পুরো বিষয়টির নিরপেক্ষ তদন্তের দাবি তুলছেন কাটোয়াবাসী। যদিও বিধায়ক রবীন্দ্রনাথ চট্টোপাধ্যায় জানিয়েছেন, ‘এই ভিডিও সত্য হলে ডেপুটি সুপারের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। মিথ্যা হলে যে বা যারা ভিডিওটি ছড়িয়েছে তাঁদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে’। এই ভিডিওটি মোবাইল ফোনের মাধ্যমে মুহুর্তের মধ্যে ছড়িয়ে পড়েছে। ডাক্তারবাবুর কীর্তি দেখে স্তম্ভিত অনেকেই।