মহিলাকে চ্যাংদোলা করে লাঠি পিঠে বেধড়ক মার! জয়ন্ত সিং-এর নোংরা কার্যকলাপ ফের প্রকাশ্যে

jayanta singh

আড়িয়াদহ কাণ্ডে জড়িত তৃণমূল ঘনিষ্ঠ জয়ন্ত সিংয়ের আরও একটি ভাইরাল ভিডিও ঘিরে রাজ্য রাজনীতিতে শোরগোল। কামারহাটির তৃণমূল বিধায়ক মদন মিত্রের ঘনিষ্ঠ বলে পরিচিত জয়ন্ত সিংয়ের সেই ভিডিও নিজের এক্স হ্যান্ডেলে পোস্ট করেছেন রাজ্য বিজেপির সভাপতি তথা কেন্দ্রীয় মন্ত্রী সুকান্ত মজুমদার এবং বিজেপির আইটি সেলের প্রধান অমিত মালব্য।

ভিডিওতে দেখা গিয়েছে, এক তরুণীকে একটি ঘরের মধ্যে লাঠি দিয়ে বেধড়ক মারধর করা হচ্ছে। তরুণী যন্ত্রণায় কাতরাচ্ছেন এবং সাহায্যের জন্য আর্তনাদ করছেন। ভিডিওতে লাঠি হাতে মারতে দেখা গিয়েছে জয়ন্ত সিংকে। সুকান্ত-অমিতদের দাবি, কামারহাটির তালতলা ক্লাবে ওই তরুণীকে মারধর করছেন জয়ন্ত এবং তাঁর দলবল।

জয়ন্ত-গ্যাঙের ভয়ে কেউ কথা মুখ খুলতে ভয় পান স্থানীয় বাসিন্দারা। এখন জয়ন্ত গ্রেফতার হতে আড়িয়াদহের পরিস্থিতি বলছেন অনেকে। স্থানীয় এক বাসিন্দা বলেন, “জয়ন্ত এভাবেই ত্রাস তৈরি করেছিল আড়িয়াদহ। অস্ত্র নিয়ে ওর ছেলেরা ঘুরে বেড়াত। সারা রাতদিন তোলাবাজি, বন্দুক নিয়ে ঘোরাফেরা করে। ছেলে তৈরি করে জয়ন্ত।”

জয়ন্ত সিংয়ের রাজনৈতিক যোগ নিয়েও জোর বিতর্ক তৈরি হয়েছিল শাসক নেতৃত্বের মধ্যেই। কার ঘনিষ্ঠ, তা নিয়ে সাংসদ-বিধায়কের মধ্যেও আকচাআকচি কম হতে দেখা যায়নি। অপরাধের এতদিন পর জয়ন্তর গ্রেফতার না হওয়ায়, তারপর থানায় গিয়ে আত্মসমর্পণের ক্ষেত্রে পুলিশের ভূমিকা নিয়েও উঠেছিল প্রশ্ন।

Google news