CBI Raid in Sandeshkhali: সন্দেশখালিতে সিবিআই অভিযানের বিরুদ্ধে নির্বাচন কমিশনে অভিযোগ টিএমসির

mamata hand

টিএমসির অভিযোগ, নির্বাচনের দিন সন্দেশখালিতে তল্লাশি (CBI Raid in Sandeshkhali) চালানো হয়েছিল এই ঘটনায় থানায় অভিযোগ দায়ের করেছে বিজেপি। দলটি বলেছে যে, ভোটের দিন সন্দেশখালির একটি খালি জায়গায় অসাধুভাবে অভিযান চালানো হয়েছে যাতে লোকসভার সময় দলের ভাবমূর্তি নষ্ট করা যায়।

লোকসভা নির্বাচন যতই ঘনিয়ে আসছে, ততই উত্তপ্ত হয়ে উঠছে পশ্চিমবঙ্গের রাজনৈতিক পরিস্থিতি। তৃণমূল ও বিজেপির মধ্যে তীব্র লড়াই চলছে। শুক্রবার নির্বাচনের দ্বিতীয় দফার ভোট চলার দিনে সন্দেশখালির বিভিন্ন জায়গায় তল্লাশি চালায় সিবিআই। সন্দেশখালি মামলার প্রধান অভিযুক্ত শাহজাহান শেখের ঘনিষ্ঠ বলে বিবেচিত আবু তালেবের দুটি জায়গায় অভিযান চালানো হয়। তার কাছ থেকে বিপুল পরিমাণ অস্ত্র ও গোলাবারুদ উদ্ধার করেছে সিবিআই।

এখন টিএমসি এই বিষয়ে পশ্চিমবঙ্গের মুখ্য নির্বাচনী আধিকারিককে চিঠি দিয়েছে। টিএমসি অভিযোগ করেছে যে নির্বাচনের দিন সন্দেশখালিতে অভিযান চালানো হয়েছিল। এই ঘটনায় থানায় অভিযোগ দায়ের করেছে বিজেপি। তৃণমূলের অভিযোগ, বাংলাকে বদনাম করার জন্য এটা করা হয়েছে। এক বিবৃতিতে তৃণমূল বলেছে তারা নির্বাচন কমিশনকে চিঠি দিয়েছে এবং “ক্ষুদ্র কারণে” সন্দেশখালিতে সিবিআই এবং এনএসজি দলগুলির আগমনের বিষয়ে কেন্দ্রীয় তদন্ত ব্যুরোর (সিবিআই) বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেছে। দলের অভিযোগ, ভোটের দিনই আসন্ন লোকসভা নির্বাচনের সময় দলের ভাবমূর্তি নষ্ট করতে পশ্চিমবঙ্গের সন্দেশখালির একটি খালি স্থানে অসাধুভাবে অভিযান চালানো হয়।

এদিকে, এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে তৃণমূল ও বিজেপি নেতাদের মধ্যে বাকযুদ্ধ শুরু হয়েছে। বিজেপি নেতা এবং বেগুসরাইয়ের সাংসদ গিরিরাজ সিং সন্দেশখালিতে অস্ত্র উদ্ধার নিয়ে রাজ্যের মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সরকারকে আক্রমণ করেছেন। গিরিরাজ সিং বলেন, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকার অপরাধীদের শক্তিতে চলে। পশ্চিমবঙ্গে রাষ্ট্রপতি শাসন জারি করার দাবি জানিয়েছে বিজেপি। রাজ্য সরকার পশ্চিমবঙ্গে মুসলমানদের অগ্রাধিকার দিচ্ছে বলে অভিযোগ করেন তিনি।

পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভার বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারীও মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সরকারকে নিশানা করেছেন। তিনি পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারের দাবি জানান। শুভেন্দু অধিকারী বলেছেন যে সন্দেশখালিতে পাওয়া অস্ত্রগুলি বিদেশী। তাদের দেশবিরোধী কার্যকলাপে ব্যবহার করা হচ্ছে। প্রাক্তন তৃণমূল নেতা শাহজাহান শেখকেও সন্ত্রাসবাদী বলে অভিহিত করেন শুভেন্দু। তিনি মমতা বন্দ্যপাধ্যায়ের গ্রেফতারির দাবি করে বলেন, মুখ্যমন্ত্রী থাকার কোনও অধিকার নেই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের। ইডি, সিবিআই, এনএসজি, এনআইএ-র পর কী হবে?

উল্লেখ্য শুক্রবার সন্দেশখালিতে আবু তালেবের ডেরায় অভিযান চালিয়ে থেকে ৪টি বিদেশি পিস্তল, ১টি দেশীয় পিস্তল, ১টি ভারতীয় রিভলবার এবং ১টি পুলিশ কোল্ট রিভলবার উদ্ধার করেছে সিবিআই। এছাড়াও, ৩৪৮টি কার্তুজ এবং বেশ কয়েকটি অপরিশোধিত বোমাও উদ্ধার করা হয়েছে। সিবিআই সন্দেহ করে যে আবু তালেবের বাড়ি থেকে উদ্ধার হওয়া সমস্ত অস্ত্র ও বিস্ফোরক আগে শাহজাহান শেখের বাড়িতে লুকিয়ে রাখা হয়েছিল। কিন্তু ইডির নজর শাহজাহান শেখের ওপরে পড়ার পর, অস্ত্রগুলি শাহজাহানের বাড়ি থেকে তার ঘনিষ্ঠ সহযোগী আবু তালেবের বাড়িতে স্থানান্তরিত করা হয়।

Google news