Kunal Kalyan Controversy: কল্যাণের কল্যাণে পদ পাইয়ে দেওয়ার তোপ কুণালকে! শুরু রাজনৈতিক উত্তাপ

রাত পোহালেই মানিকতলা বিধানসভা আসনে উপনির্বাচনে। তার কয়েকঘণ্টা আগে বিজেপি প্রার্থী কল্যাণ চৌবের বিরুদ্ধে বিস্ফোরক অভিযোগ তৃণমূল নেতা কুণাল ঘোষের(Kunal Kalyan Controversy)। একটি অডিয়ো প্রকাশ করে কুণালের দাবি, তাঁকে ফোন করেছিলেন বিজেপি প্রার্থী। উপনির্বাচনে তাঁকে সাহায্য করার আবেদন জানান। একইসঙ্গে তৃণমূল নেতার অভিযোগ, ভোটে সাহায্য করলে ক্রীড়া ক্ষেত্রে তাঁকে পদ পাইয়ে দেওয়ার কথা বলেছেন কল্যাণ।

কুণালের এই অভিযোগ ঘিরে রাজনৈতিক মহলে শোরগোল পড়েছে। কুণালের অভিযোগের জবাব দিয়েছেন কল্যাণ চৌবে। ফোন করেছিলেন বলে মেনে নেন তিনি। কিন্তু, পদ পাইয়ে দেওয়ার কথা ঠিক নয় বলে মন্তব্য করেন।

মঙ্গলবার সাংবাদিক সম্মেলন করে টেলিফোনে কথোপকথনের অডিও প্রকাশ্যে আনেন কুণাল ঘোষ। তাঁর দাবি, রবিবার রাত সাড়ে ১১টায় কল্যাণ চৌবে তাঁকে ফোন করেছিলেন। তৃণমূল নেতার কথায়, “আমাকে ভোটে অন্তর্ঘাতের প্রস্তাব দেওয়া হয়। বিনিময়ে খেলার জগতে রাজ্য বা জাতীয়স্তরে বড় পদের প্রস্তাবও দিয়েছেন বিজেপি প্রার্থী।” যদিও সেই প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করেছেন কুণাল (Kunal Kalyan Controversy) । অডিও পোস্ট করে কুণালের দাবি, বিজেপির নিশ্চিত পরাজয় বুঝে অনৈতিকভাবে ঘুষ দেওয়ার কথা বলছেন কল্যাণ চৌবে। বিজেপি প্রার্থী নিজের স্বার্থে এআইএফএফকে ব্যবহার করছে বলেও অভিযোগ। বিজেপি প্রার্থীকে ভোট না দেওয়ার জন্য মানিকতলার বাসিন্দাদের কাছে আবেদন করেন কুণাল।

কল্যাণ দাবি করেছেন, কুণাল নিজেই তাঁকে রবিবার রাত এগারোটার পর ফোন করতে বলেছিলেন৷ তবে তিনি কুণালকে ক্রীড়াক্ষেত্রে বড় কোনও পদ পাইয়ে দেওয়ার টোপ দেননি বলেই দাবি করেছেন কল্যাণ৷ তাঁর দাবি, কুণালের প্রকাশ করা অডিওতে তাঁর গলা বিকৃত করা হয়েছে৷

Google news