Narendra Modi: ভিভিপ্যাট বিষয়ে সুপ্রিম রায় নিয়ে বিরোধীদের একহাত নিলেন মোদি

Modi Malda

বিহারের আরারিয়ায় এক নির্বাচনী জনসভায় মোদী (Narendra Modi) বলেন, ‘আরজেডি-কংগ্রেস এবং’ ইন্ডিয়া “জোট দেশের সংবিধান বা গণতন্ত্রের পরোয়া করে না। এই লোকগুলোই ১০ বছর ধরে ব্যালট পেপারের অজুহাতে গরিবদের অধিকার কেড়ে নিয়েছে। আরজেডি-কংগ্রেস শাসনকালে নির্বাচনে কীভাবে বুথ ও ব্যালট পেপার লুট করা হয়েছিল, তার সাক্ষী বিহারের মানুষ। তাছাড়া, দরিদ্রদের ভোট দেওয়ার জন্য বাড়ি থেকে বেরোতে দেওয়া হত না। দেশের দরিদ্র ও সৎ ভোটাররা যখন ই ভি এম-এর শক্তি পেয়েছিলেন, তখন নির্বাচনের দিন যাঁরা ভোট লুটপাটের খেলা খেলতেন, তাঁরা তা সহ্য করতেন না।’

প্রত্যেক নেতা ইভিএমে মানুষের মনে সন্দেহ তৈরি করার পাপ করেছেন। কিন্তু, আজ যাঁরা ব্যালট বাক্স লুঠ করেছেন এবং যাঁরা তা করতে চেয়েছিলেন, সুপ্রিম কোর্ট তাঁদের বড় ধাক্কা দিয়েছে। তাদের সব স্বপ্ন ভেস্তে গেছে। আজ সুপ্রিম কোর্ট স্পষ্ট করে বলেছে, ব্যালট পেপারের এই পুরনো যুগ আর ফিরে আসবে না।’

উল্লেখ্য, সুপ্রিম কোর্ট বৈদ্যুতিন ভোটিং মেশিনের (ইভিএম) মাধ্যমে প্রতিটি ভোটের সঙ্গে ভিভিপ্যাট স্লিপের তালিকার আবেদন খারিজ করে দেয়। এর অর্থ হল আগের মতোই ই ভি এম-এর মাধ্যমে ভোট গ্রহণ অব্যাহত থাকবে এবং ভি ভি পি এ টি মেশিনগুলি সমস্ত ই ভি এম-এর সঙ্গে সংযুক্ত থাকবে।

বিচারপতি সঞ্জীব খান্না ও দীপঙ্কর দত্তের বেঞ্চ বলেছে, “আমাদের মতে, ইভিএমে কাজ করা সহজ, নিরাপদ এবং ব্যবহার বান্ধব। ভোটার, প্রার্থী, তাঁদের প্রতিনিধি এবং নির্বাচন কমিশনের আধিকারিকরা ইভিএমে কী কী রয়েছে, তা জানেন। তারা পরীক্ষা করে এবং নিশ্চিত করে যে যন্ত্রগুলি সঠিক এবং সঠিকভাবে কাজ করছে কিনা। ভিভিপ্যাট ব্যবস্থার প্রবর্তন ভোট যাচাইয়ের ধারণাকে শক্তিশালী করে, যা নির্বাচনী প্রক্রিয়ায় জবাবদিহিতাও বাড়ায়।’

বেঞ্চ বলেছে, প্রতিটি ভোটকে ভিভিপ্যাট স্লিপের সঙ্গে মেলানোর আবেদনটি শুনানির জন্য এই পিটিশনগুলি গ্রহণ করার ভিত্তি হতে পারে না। আদালত আরও বলেছে যে ব্যালট পেপার বা ইভিএমে অন্য কোনও বিকল্প প্রবর্তনের পদক্ষেপটি পশ্চাদগামী হবে এবং ভারতীয় নাগরিকদের স্বার্থকে পর্যাপ্তভাবে রক্ষা করবে না। তাই এই কাজ করা উচিত নয়। আদালত বলেছে, “ব্যালট পেপারের পুরনো ব্যবস্থা গ্রহণের অনুরোধকে অযৌক্তিক ও তুচ্ছ বলে আমাদের অবশ্যই খারিজ করতে হবে। ব্যালট ব্যবস্থার ত্রুটি-বিচ্যুতি সবাই জানে।’

আদালত আরও বলেছে যে কোনও সংসদীয় কেন্দ্রের প্রতিটি বিধানসভা বিভাগে, নির্বাচনের ফলাফল ঘোষণার পরে ৫ শতাংশ ইভিএমে (কন্ট্রোল ইউনিট, ব্যালট ইউনিট এবং ভিভিপ্যাট) মেমরি বা মাইক্রোকন্ট্রোলারটি ইভিএম উত্পাদনকারী সংস্থার ইঞ্জিনিয়ারদের দ্বারা পরীক্ষা করা উচিত। তারা দেখবে মেশিনে কোনও কারচুপি হয়েছে কিনা। তবে দ্বিতীয় ও তৃতীয় স্থান অধিকারী প্রার্থীদের লিখিত অনুরোধের পরেই এটি করা হবে।

Google news